পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে প্রভাষক জগলুল হকের উপর হামলার প্রতিবাদে মানব বন্ধব।

33

জিল্লুর রহমান: কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার বড়গাংদিয়া গ্রামে গত ২৮/০৪/১৯ ইং পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দৌলতপুর ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক মোহাঃ জগলুল হক সহো তার পরিবারের উপর হামলা হয়। এবং পুনরায় গত শুক্রবার জগলুল হক এর বড় ভাই আমিরুলের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে।

এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন এলাকাবাসী। গত সোমবার বিকেল ৩ টার দিকে বড়গাংদিয়া ইদগাহ্ মোড়ে এলাকায় কয়েক শ নারী-পুরুষ ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন করেন। এ সময় প্রতিবাদকারীরা হামলাকারী সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তার ও বিচার দাবি করেন।

উল্লেখ্য আমিরুল ইসলাম নিজ বাড়ি থেকে বাইসাইকেল যোগে ১০মে শুক্রবার বড়গাংদিয়া বাজারের উদ্দেশ্যে রওনা হলে পথের মাঝে উত পেতে থাকা চার থেকে পাঁচজন পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে হাতুড়ী,সাবল,বাশেঁর লাঠি,দিয়ে এলোপাতাড়ি মারপিট করে সেখান থেকে স্থানীয় জনগণ আমিরুলের অবস্হা খারাপ দেখে উদ্ধার করে প্রথমে দৌলতপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার আমিরুলের অবস্থার অবনতি দেখে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হসপিটালে রেফাট করেন সেখানকার কর্তব্যরত ডাক্তার আমিরুলের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকাতে রেফাট করেন।বর্তমানে আমিরুল ঢাকা পিজি হসপিটালে মৃত্যুর সাথে পান্জা লড়ছে।

এ ব্যাপারে দৌলতপুর থানায় আমিরুলের পরিবার বাদী হয়ে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে এবং ৪/৫ জন কে অজ্ঞাত আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন মামলা নং১৩ এব্যাপারে দৌলতপুর থানার ভার্রপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাঃ নজরুল ইসলাম জানান বিষয়টা তদন্ত করে মামলা নেওয়া হয় এবং অভিযান চালিয়ে একজন আসামিকে গ্রেপ্ততার করা হয় এবং বাকি আসামিরা পরাতক, তাদের গ্রেপ্তারের অভিযান অব্যহত আছে।